সুস্বাস্থ্য.কম

সুস্থ্য দেহ ও সতেজ মনের জন্য...

  • Increase font size
  • Default font size
  • Decrease font size

থ্রমবোএম্বোলিজম (Thromboembolilsm)

E-mail Print

থ্রমবোএম্বোলিজম ধমনীর (রক্তনালী) একটি রোগ। ধমনী হার্ট থেকে রক্ত শরীরের বিভিন্ন স্থানে পৌছে দেয়। ধমনীর কোথাও যদি রক্ত জমে যায় তাহলে তার পরবর্তী অংশে রক্ত যেতে পারেনা, ফলে পুষ্টি এবং অক্সিজেনের অভাবে ঐ অংশটির মৃত্যু হয়। এই জমে যাওয়া রক্ত যদি ছুটে দুরবর্তী কোনো ছোটো ধমনীতে আটকে যায় তাহলে তাকে থ্রমবোএম্বোলিজম বলে। অনেক সময় বড় ধমনীতেও থ্রমবোএম্বোলিজম হয়।

যে অংগে (যেমন হাত, পা ইত্যাদি) এমনটি হয় তাতে হঠাৎ করে প্রচন্ড ব্যথা অনুভুত হয় এবং তা দ্রুত ঠান্ডা হয়ে যেতে শুরু করে এবং নীলচে কালো বর্ণ (Cyanosis) ধারকরে। কালো বর্ণ ধারণ করার অর্থ ঐ স্থানের কোষগুলো আর বেচে নেই, তাই কালো হবার অনেক আগেই এই রোগের চিকিৎসা শুরু করতে হবে।

রিউমেটিক ফিভার বা বাতজর জনিত হৃদরোগ, করোনারি হৃদরোগ, মহাধমনীতে চর্বি জমে যাওয়া (Atherosclerosis) বা অস্বাভাবিক প্রসস্থ হয়ে যাওয়া (Aortic aneurysm) প্রভৃতি কারনে ধমনীতে রক্ত জমে যেতে পারেএসব জমাট রক্ত ছুটে থ্রমবোএম্বোলিজম হবার ঘন্টার মধ্যেই অপারেশন করে তা ছুটিয়ে দিতে হয়বেশী দেরী করলে হাত-পা বা সংস্লিষ্ট অঙ্গটি নষ্ট হয়ে যেতে পারে এবং তা কেটে ফেলতে (Amputation) হতে পারেঅপারেশনের পর রোগী সুস্থ হয়ে গেলেও অনেক দিন রক্ত পাতলা করার বড়ি (ওয়ারফেরিন) খেতে হয়তাই যেসব রোগীর রক্ত জমাট হয়ে যাবার প্রবণতা আছে তারা এই বড়ি সেবন করে এবং রোগের প্রাথমিক পর্যায়ে চিকিৎসা নিয়ে এই রোগ থেকে রক্ষা পেতে পারেন

 

 

সুস্বাস্থ্য সুপারিশ করুন

এই সাইটের সকল তথ্য শুধুমাত্র চিকিৎসা সংক্রান্ত জ্ঞানার্জন ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রকাশিত যা কোন অবস্থাতেই চিকিৎসকের বিকল্প নয়রোগ নির্নয় ও তার চিকিৎসার জন্য সংশ্লিস্ট চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া বাঞ্ছনীয়