সুস্বাস্থ্য.কম

সুস্থ্য দেহ ও সতেজ মনের জন্য...

  • Increase font size
  • Default font size
  • Decrease font size

জায়ান্ট সেল টিউমার (Giant Cell Tumour)

E-mail Print

অস্থির এই নিরীহ শ্রেনীর টিউমারটির বিশেষ পরিচয় হলো এটা খুব দ্রুত বর্ধনশীল। জায়ান্ট নামকরনের কারন হিসেবে যদিও কেউ ভাবতে পারেন এটা বুঝি বিশাল আকৃতির কোন টিউমার হবে বাস্তবে কিন্ত তা নয়, এই টিউমারে অনেক অনেক জায়ান্ট সেল বা কোষ থাকে বলেই এর নাম এমন। হাটুর অস্থিতে এই টিউমার হবার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশী, তবে কবজি এবং বাহু স্কন্ধে বা শোল্ডার জয়েন্টেও এই টিউমার হতে দেখা যায়। এটি অল্প বয়সে হবার মতো একটি টিউমার এবং সাধারনত ২০ থেকে ৪০ বছরের মাঝামাঝিই এই টিউমারটি বেশী হতে দেখা যায়। এক্সরে পরীক্ষা করার মাধ্যমে এর উপস্থিতি টের পাওয়া যায়। জায়ান্ট সেল টিউমার সাধারনত একটির বেশী হয়না তবে মূল টিউমার থেকে নুতন টিউমারের জন্ম হবার সম্ভাবনা আছে। এই রোগ হলে একজন অর্থোপেডিক সার্জন এর সাথে যোগাযোগ করা উচিত।

 

 

সুস্বাস্থ্য সুপারিশ করুন

এই সাইটের সকল তথ্য শুধুমাত্র চিকিৎসা সংক্রান্ত জ্ঞানার্জন ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রকাশিত যা কোন অবস্থাতেই চিকিৎসকের বিকল্প নয়রোগ নির্নয় ও তার চিকিৎসার জন্য সংশ্লিস্ট চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া বাঞ্ছনীয়