সুস্বাস্থ্য.কম

সুস্থ্য দেহ ও সতেজ মনের জন্য...

  • Increase font size
  • Default font size
  • Decrease font size

ইকোকার্ডিওগ্রাম

E-mail Print

ইকো শব্দের বাংলা অর্থ প্রতিধ্বনি। এই প্রতিধ্বনি কে কাজে লাগিয়ে বাদুর সহ নানা প্রানী রাতের অন্ধকারে চলাচল করে, জাহাজ থেকে সমুদ্রের গভীরতা মাপা হয় ইত্যাদি তথ্য আমাদের সবারই জানা। যখন এই ইকো কে কাজে লাগিয়ে শরীরের পেটের ভেতরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ দেখা হয় তাকে বলা হয় আলট্রাসনোগ্রাম (Ultrasonogram), আর যখন হৃদপিন্ডের বিভিন্ন অংশ দেখা হয় তাকে বলা হয় ইকোকার্ডিওগ্রাম (Echocardiogram)। প্রশ্ন উঠতে পারে শব্দ আবার কিভাবে দেখা যায় তাইনা? আসলে আমাদের শ্রবন মাত্রার উর্ধের (Hypersonic) শব্দ কে একটি Probe এর মাধ্যমে পাঠিয়ে দিয়ে তার প্রতিধ্বনি আবার সেই প্রোব দিয়ে গ্রহন করা হয়, এর পর কম্পিউটারে তাকে কৃত্রিম ভাবে ইমেজ বা ছবি আকারে গঠন করে দেখা হয়। যে অঙ্গ যত গভীরে তাকে ভেদ করতে শব্দ কে তত ভেতরে যেতে হয়, তেমনি যে অঙ্গটি যত কঠিন সে তত দ্রুত পুর্ণমাত্রায় শব্দের প্রতিধ্বনি পাঠায়। শব্দের এই ধর্মের উপড় ভিত্তি করেই আল্ট্রাসনোগ্রাম এবং ইকোকার্ডিওগ্রাম করা হয়।

ইকোকার্ডিওগ্রামের মাধ্যকে বোঝা যায় হার্ট ঠিক মতো রক্ত পাম্প করতে পারছে কিনা, হার্ট এর কোনো প্রকোষ্ঠ বড়/ছোটো হয়ে গেলো কিনা, এর মাংশপেশী মোটা বা পাতলা হয়ে গেলো কিনা, হার্ট এর Valve গুলো ঠিকমতো কাজ করছে কিনা, কোথাও অস্বাভাবিক কোনো ফুটা আছে কিনা বা জন্মগত অন্য কোনো ত্রুটি আছে কিনা, কোনো টিউমার আছে কিনা, হার্ট এ পানি জমলো কিনা, হার্টে রক্তের গতি কেমন ইত্যাদি। আসলে ইকোকার্ডিওগ্রাম পরীক্ষাটি আবিস্কারের পর হার্টের বিভিন্ন রোগ সনাক্ত করা অনেক সহজ হয়ে গেছে। ইসিজির মতো ইকোকার্ডিওগ্রাম করার ও কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

 

 

সুস্বাস্থ্য সুপারিশ করুন

এই সাইটের সকল তথ্য শুধুমাত্র চিকিৎসা সংক্রান্ত জ্ঞানার্জন ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রকাশিত যা কোন অবস্থাতেই চিকিৎসকের বিকল্প নয়রোগ নির্নয় ও তার চিকিৎসার জন্য সংশ্লিস্ট চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া বাঞ্ছনীয়