সুস্বাস্থ্য.কম

সুস্থ্য দেহ ও সতেজ মনের জন্য...

  • Increase font size
  • Default font size
  • Decrease font size

ম্যামোগ্রাফি (Mamography)

E-mail Print

ম্যামোগ্রাফি হলো স্তনের বিশেষ ধরনের এক্সরে পরীক্ষা। সাধারন এক্সরে পরীক্ষার চেয়ে এতে তেজস্ক্রিয়তা (Radiation) এর মাত্রা অনেক কম। এ পরীক্ষায় স্তনটিকে আল্ট্রাসেনসিটিভ এক্সরে মেশিনের গায়ে লাগিয়ে কম ভোল্টেজ এবং বেশী এম্পিয়ারেজ মাত্রার এক্সরে স্তনের ভিতর দিয়ে পাঠানো হয়। এতে রেডিয়েশন এর মাত্রা থাকে ০.১ সিগাই এর মতো যা অপেক্ষাকৃত নিরাপদ।

ম্যামোগ্রাফি পরীক্ষার মাধ্যমে হাতে যাচাই করে যে সকল স্তন টিউমার পাওয়া যায়না সেসকল টিউমার এক্সরে তে ধরা পরে। টিউমারটি ক্যান্সার না নিরীহ শ্রেনীর তাও ম্যামোগ্রাফি পরীক্ষায় অনেক সময় ধরা পরে তবে তা নিশ্চিত করতে অবশ্যই বায়োপসি করা প্রয়োজন। মহিলাদের বয়স ত্রিশ এর উর্ধ্বে গেলে ম্যামোগ্রাফি পরীক্ষাটি সঠিক ফলাফল দেয়। এর কম বয়সি মহিলাদের স্তনের টিউমার নির্নয়ের জন্য আল্ট্রাসনোগ্রাফি পরীক্ষা বেশী কার্যকর। তবে সব মিলিয়ে শতকরা ৯৫ ভাগ ক্ষেত্রেই ম্যামোগ্রাফি পরীক্ষাটি সঠিক ফলাফল দেয়। টিউমারটি ক্যান্সার না নিরীহ শ্রেনীর কোনো টিউমার তা ১০০% নিশ্চিত করার পরীক্ষা অবশ্য বায়োপসি করে হিস্টপ্যাথলজি করা।

{flike}

 

সুস্বাস্থ্য সুপারিশ করুন

এই সাইটের সকল তথ্য শুধুমাত্র চিকিৎসা সংক্রান্ত জ্ঞানার্জন ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রকাশিত যা কোন অবস্থাতেই চিকিৎসকের বিকল্প নয়রোগ নির্নয় ও তার চিকিৎসার জন্য সংশ্লিস্ট চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া বাঞ্ছনীয়